২১শে বই মেলায় ঠাকুরগাওয়ের রয়েল এর ব্যাপক সাড়া

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৪৪ PM, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

মো. আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল, ঠাকুরগাও : ঢাকায় চলমান ২১শে বই মেলায় বাংলা বাক্যকে সহজে ইংরেজি করার কৌশল করার “ এ্যান এক্সক্লুসিভ গ্রামার বুক ” বইগুলো বেশ সাড়া পেয়েছে। তরুণ লেখক মোঃ মনিরুল ইসলাম রয়েল ঠাকুরগাও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার খঞ্জনা গ্রামের এক দরিদ্র কৃষক ঘরের ছেলে। বাবা ফুসফুস ক্যান্সারে আক্রান্ত রয়েছেন। জায়গা জমি কিংবা আয় রোজগার না থাকায় অভাব অনটনে চলে সংসার । এই তরুণ লেখক বাবা মায়ের ৫ ছেলে মেয়ের মধ্যে চুতুর্থ। বাবার নাম দবিরুল ইসলাম, মা মনোয়রার আশার আলো এই ছেলেটি। গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ালেখা শেষে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা লাভ করেন। কৃতিত্বের সাথে জিপিএ-৫ পেয়ে রাণীশংকৈল ডিগ্রী কলেজে অধ্যয়নকালে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪.৯০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ন হন। বর্তমানে রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইংরেজি বিষয়ে অধ্যায়নরত। পাশাপাশি ইন্টারন্যাশনাল অনলাইন এডুকেশন ইনস্টিটিউট ঢাকা’য় শিক্ষকতা করছেন। উল্লেখ্য তিনি পঞ্চম শ্রেণিতে মেধা তালিকায় ঠাকুরগাও জেলায় প্রথম স্থান অধিকার করেন।
দরিদ্র পরিবারের কৃতি সন্তান রয়েল শিক্ষা জীবনের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকগণের কাছ থেকে সাফল্যের শিখরে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। সহযোগিতাও পেয়েছেন তিনার লেখা প্রথম প্রকাশনী “ রয়েল’স ডিজিটাল গ্রামার ” ও দ্বিতীয় প্রকাশনীর “ রয়েল’স ম্যাজিক মেথড ” নামের বই দুইটি প্রকাশনায়। ঢাকার প্রথম শ্রেণির প্রকাশনী প্রতিষ্ঠান দীপ্ত প্রকাশনী বাজার জাত করেছেন। ঢাকার ২১শে বই মেলায় বেশ সাফল্য পেয়েছে বইগুলো। প্রথম প্রকাশনার ২০ হাজার কপি বিক্রী শেষে দ্বিতীয় প্রকাশনার ২০ হাজার কপি প্রায় শেষ পর্যায়ে। ২০১৫ সালে তিনি দীপ্ত প্রকাশনীর শ্রেষ্ঠ লেখক হিসেবে প্ররস্কৃত হয়েছেন। ২১শে বই মেলায় তিনার লেখা বই বিক্রীতে বেশ সাড়া পেয়ে নিজেকে ধন্য মনে করছেন। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন শিক্ষা জীবনের শিকক্ষগণের। অকপটে ভেসে আসে রাণীশংকৈল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ তাজুল ইসলাম, সাইফুর রহমান খান, এ্যাাডভোকেট আবু নাসের হোসেন, প্রফেসার ইসমাইল হোসেন, স্যার রেজাউল করিম, স্যার হোসেন রানা, মোশাররফ হোসেনসহ আরো অনেকের। তিনার উৎসাহ দেখে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন এশিয়ান ও রয়েল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক স্যার রিয়াজুল ইসলাম। বইখানির পরিচিতি ঘটাতে সুপরামর্শ দিয়ে এসেছেন সার্বক্ষনিক। তিনার এবং দীপ্ত প্রকাশনীর সহযোগিতায় বইখানি ২১শে বই মেলায় বেশ সাড়া জাগিয়েছে, পরিচিতি ঘটিয়ে সাফল্য এনে দিয়েছেন ঠাকুরগাও জেলার। ২১শে বই মেলায়। শিক্ষার্থীদের মন জয় করেছেন অনায়াসে বইগুলো প্রকাশনার মাধ্যমে।
দীপ্ত প্রকাশনীর পরিচালক মোঃ রিয়াজুল ইসলাম জানান, ইতিমধ্যেই বইগুলো ভারত ও মালয়েশিয়ার বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে সাড়া পেয়েছে। প্রকাশনার অপেক্ষায় থাকা বইগুলো আরো নতুন আঙ্গিকে সাজানো হয়েছে। আশা করি খুব কম সময়ের মধ্যে এগুলো প্রকাশ হয়ে পাঠকের মন জয় করবে।
মনিরুল ইসলাম রয়েল ঠাকুরগাঁওয়ের খবরকে জানান, আমার লেখা বইগুলো ঢাকা ২১শে বই মেলায় একটু হলেও সাড়া জাগিয়েছে তাই পাঠক ও সহযোগিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। তিনি সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করেছেন।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :