স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে হত্যার চেষ্টা; স্ত্রী-ছেলে আটক

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:০২ AM, ২০ মার্চ ২০১৭

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা : লক্ষ্মীপুরে স্ত্রী লাকি বেগমের বিরুদ্ধে স্বামী হোসেন আহম্মদের গোপনাঙ্গ কেটে হত্যার চেষ্টা করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় হোসেন আহম্মদকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

স্বামী-স্ত্রীর কলহের জের ধরে রোববার দুপুরে উত্তর হামছাদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার সাথে জড়িত স্ত্রী লাকি বেগম গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী।

পরে তাঁদের পুত্র আরিফ হোসেনেরকে আটক করেন পুলিশ। সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, ভর্তিরত হোসেন আহাম্মেদ এর অবস্থায় আশংঙ্কাজনক।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে হোসেন আহম্মদ পরিবার নিয়ে ঢাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস করছেন। ইতিমধ্যে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহ দেখা দেয়।

এর জের ধরে সম্প্রতি ঢাকা থেকে হোসেন আহম্মদ উত্তর হামছাদী এলাকায় নিজ বাড়িতে চলে আসেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মোবাইল ফোনে প্রায় জগড়া বিবেধ লেগে থাকত।

স্ত্রী লাকি বেগম ও ছেলে আরিফ হোসেনকে সাথে নিয়ে রোববার সকালে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে আসেন। হোসেন আহম্মদের কাছে ঢাকা থেকে চলে আসার বিষয় জানতে চায় তারা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে হোসেন আহম্মদের বিশেষ স্থান কেটে হত্যার চেষ্টা করে স্ত্রী।

এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে স্ত্রীকে আটক করে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্ত্রী ও ছেলেকে আটক করে এবং গুরুতর আহত অবস্থায় হোসেন আহম্মদকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হোসেন আহম্মদ জানান, স্ত্রীর জ্বালা-যন্ত্রনা সহ্য করতে না পেরে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে চলে আসি। হঠাৎ স্ত্রী ও ছেলে আমাকে হত্যার চেষ্টা করে। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে বিচার চেয়েছেন তিনি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন ভূইয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্বামীর বিশেষ স্থান কর্তন বিষয়টি লজ্জাকর ও দুঃখজনক।এ ঘটনায় স্ত্রী ও ছেলেকে আটক করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :