সরকারি রাস্তা ও খাস জমি খনন করে বালু উত্তোলন; হুমকির মুখে রাস্তাসহ ফসলি জমি

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:১৮ PM, ৩০ মার্চ ২০১৭

প্লাবন গুপ্ত শুভ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার বিনোদনগর ইউনিয়নের নন্দনপুর চেংমারি ডাঙ্গা নামক স্থানের সরকারি রাস্তার ও খাস জমি খনন করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় হুমকিতে পড়েছে রাস্তাটিসহ ফসলি জমি।

প্রভাবশালী ব্যক্তি ওই বালু উত্তোলন ও বিক্রির সাথে জড়িত থাকায় অবৈধ বালু উত্তোলনের ব্যাপারে প্রতিবাদ করতে গিয়ে বিভিন্নভাবে হুমকির মুখে পড়ায় কেউই মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না।

নন্দনপুর গ্রামের শওকত আলী ও মোশাররফ হোসেন বলেন, একই গ্রামের তৈইজ উদ্দিনের ছেলে খলিলুর রহমান দুলাল দীর্ঘদিন ধরে নন্দনপুর চেংমারি ডাঙ্গা নামক স্থানের সরকারি রাস্তা সংলগ্ন সরকারি খসি জমিতে ড্রেজার মেশিন মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বানিজ্যিকভাবে বালুর ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। রাস্তার পার্শ্বের জমি থেকে বালু উত্তোলনের কারণে ইতোমধ্যে চেংমারি ডাঙ্গা রাস্তাটির ৪০০ ফুট রাস্তা ভেঙ্গে গেছে। এতে ওই রাস্তা দিয়ে জনসাধারণের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। একই সাথে বালু উত্তোলনের কারণে আশপাশের ফসলি জমিও হুমকির মুখে পড়েছে। সরকারি রাস্তা ও খাস জমি থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়ে প্রতিবাদ করায় তাদেরকে বিভিন্নভাবে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়া হয়েছে। ফলে বিষয়টি জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডেও ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম আমান বলেন, সাইফুল ইসলাম দুলাল ইতোমধ্যে সরকারি রাস্তার প্রায় ৪০০ফুট এবং সরকারি খাস জমির প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ ফুট গভীর করে খননের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করেছেন। যা বর্তমানেও অব্যাহত রয়েছে। এতে করে সরকারি রাস্তাটিসহ ফসলি জমিগুলো হুমকির মুখে পড়েছে।

বালু উত্তোনকারি সাইফুল ইসলাম দুলাল বালু উত্তোলনের কথা স্বীকার করে বলেন, যেসব জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে সেটি সরকারি জমি বা রাস্তার নয়। ব্যক্তি মালিকানাধিন জমি থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এলাকার কিছু ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বজলুর রশীদ বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে। #

জনদুর্ভোগ

আপনার মতামত লিখুন :