সরকারি অফিস ভাঙচুর করায় ঠাকুরগাঁওয়ের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:২২ PM, ৩০ জুন ২০১৬

ঠাকুরগাঁওয়ের খবর : ঠাকুরগাঁও জেলা সমবায় কার্যালয়ে গিয়ে অফিসের কর্মচারীদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরণ,কর্মচারীদের গায়ে হাত ও টেবিলের গ্লাস ভাঙচুর করায় ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সুলতানুল ফেরদৌস নম্র চৌধুরীর বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি জিডি করেছেন জেলা সমবায় কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারি মোঃ আজাহার আলী।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় উচ্চমান সহকারির ডেস্কের গ্লাস ভাঙ্গা এবং সেই ভাঙ্গা টেবিলেই অফিস করছেন উচ্চমান সহকারি।অফিসের কর্মচারী ননী গোপাল সেন জানান, গতকাল পোনে দুইটার দিকে আমাদের অফিসে এসে উচ্চমান সহকারির সাথে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ সহ প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করে টেবিলের গ্লাস ভাঙচুর ও আমাদের উচ্চমান সহকারির গায়ে হাত দেন নম্র চৌধুরী। এ সময় আমরা ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ি ও তাদের বাক-বিতন্ডা থামানোর চেষ্টা করি।

লাঞ্ছনার শিকার উচ্চমান সহকারি আজহার আলী বলেন, গতকাল বেলা ১.৪৫মিনিটে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সুলতানুল ফেরদৌস নম্র চোধুরী,এস এম আতাউর রহমান জুয়েল সহ আরো অজ্ঞাত ৪-৫জন কেন্দ্রীয় আখ চাষী সমিতির নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য জানতে চেয়ে পরিদর্শকদের রুমে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।এ সময় আমি সেখানে উপস্থিত হয়ে নির্বাচনের নিয়ম-কানুন জানানোর চেষ্টা করলে নম্র চৌধুরী আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এবং আমার ডেস্কে এসে সজোড়ে আঘাত করে ডেস্কের গ্লাস ভাঙচুর করেন।এ সময় অফিসের অন্যান্য স্টাফরা অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে আমকে অন্য রুমে নিয়ে যান।পরে আমি আমার অফিস প্রধানকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি জেলা প্রশাসক মহোদয়ের পরামর্শে থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করতে বলেন।এ ব্যাপারে  ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি জিডি করা হয়েছে।জিডি নং-২১১৯,তাং-২৯/৬/১৬ইং।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন জেলা সমবায় কর্মকর্তা মোঃ হাশমত আলী জোয়ার্দ্দার।

উল্লেখ্য,এর আগে তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান থাককালীন জেলা শিক্ষা অফিসারকেও তার কার্যালয়ে গিয়ে তাঁকে লাঞ্ছিত করেন।

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :