শুধুমাত্র আখচাষীদের আখ ক্রয়ে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ পেল বিএসএফআইসি

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৫০ PM, ১৭ ডিসেম্বর ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ের খবর ডেস্ক : বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি) নিজস্ব অর্থে চাষীদের আখের মূল্য পরিশোধ করতে পারছে না । এ অবস্থায় বিএসএফআইসির চিনিকলের অনুকূলে ২০২০-২১ অর্থবছরে চাষীদের আখের মূল্য পরিশোধ বাবদ ‘পরিচালন ঋণ’ হিসেবে শর্ত সাপেক্ষে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

১৪ ডিসেম্বর শিল্প সচিবকে পাঠানো অর্থ বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব নূরউদ্দিন আল ফারুক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বরাদ্দের বিষয়টি জানানো হয়। চিঠিতে বলা হয়, শিল্প মন্ত্রণালয়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিএসএফআইসির চিনিকলের অনুকূলে আখচাষীদের শুধু আখের মূল্য পরিশোধ বাবদ ২০২০-২১ অর্থবছরের অর্থ বিভাগের বাজেটে ‘পরিচালন ঋণ’ খাত হতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন ১০০ কোটি টাকা শর্ত সাপেক্ষে বরাদ্দ দেয়া হলো।

শর্তে বলা হয়েছে, এ বরাদ্দকে নজির হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। বরাদ্দ অর্থ শুধু আখচাষীদের আখের মূল্য পরিশোধ ব্যতীত অন্য কোনো খাতে ব্যয় করা যাবে না। বরাদ্দকৃত অর্থ বিএসএফআইসির নিরীক্ষিত ভর্তুকি ও ট্রেড গ্যাপের সঙ্গে সমন্বয়যোগ্য হবে।

বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয়ের বিস্তারিত হিসাব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট ফার্ম দিয়ে নিরীক্ষা করে তার রিপোর্ট আগামী তিন মাসের মধ্যে অর্থ বিভাগে প্রেরণ করতে হবে। এ পর্যন্ত বিএসএফআইসির অনুকূলে প্রদত্ত রাষ্ট্রীয় গ্যারান্টির বিপরীতে গৃহীত/উত্তোলিত ঋণ যথাসময়ে পরিশোধ করতে হবে এবং এ-সংক্রান্ত তথ্য নিয়মিতভাবে অর্থ বিভাগকে অবহিত করতে হবে।

বরাদ্দকৃত অর্থ বিএসএফআইসির অনুকূলে ‘পরিচালন ঋণ’ হিসেবে গণ্য হবে, যা আগামী ২০ বছরে (পাঁচ বছর গ্রেস পিরিয়ডসহ) ৫ শতাংশ সুদে ষাণ্মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে। এ বিষয়ে অর্থ বিভাগের সঙ্গে বিএসএফআইসিকে একটি ঋণচুক্তি সম্পাদন করতে হবে এবং বরাদ্দ অর্থের জিও জারি করে এর দুই কপি পৃষ্ঠাঙ্কনের জন্য অর্থ বিভাগে পাঠাতে হবে।

বিডি

আপনার মতামত লিখুন :