লেবাস পাল্টে ও আত্মগোপনে থেকেও শেষ রক্ষা হয়নি ধর্ষক তারেকের !

Bidhan DasBidhan Das
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:০৩ AM, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

সিলেট : স্বামীকে বেঁধে রেখে সিলেট মুরারি চাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে গণধর্ষণ মামলার ২ নম্বর আসামি তরেকুল ইসলাম তারেককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। লম্বা গোফ ও মাথার চুল কেটে লেবাস পাল্টেও শেষ রক্ষা হয়নি তার।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার থেকে তাকে গ্রেফতার করেন র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা।

র‌্যাব -৯ এর মিডিয়া অফিসার এএসপি ওবাইন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, তারেককে সিলেটে নিয়ে আসা হচ্ছে। সিলেট পৌঁছলে আইন প্রক্রিয়া শেষে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

এ নিয়ে ধর্ষণ মামলায় এজাহারভুক্ত ৬ আসামিসহ মোট আটজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে ৬জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

পুলিশ জানিয়েছে, ধর্ষণের পর তারেকুল ইসলাম গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যান। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে তিনি মাথার চুল ও দাড়ি গোফ কেটে ফেলেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড় এলাকার এমসি কলেজে স্বামীর সাথে বেড়াতে আসা ওই এক নববধূকে ক্যাম্পাস থেকে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে ধর্ষণের শিকার তরুণীর স্বামী বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমানকে প্রধান আসামি করে নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, এমসি কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমান, কলেজের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, মাহফুজুর রহমান মাছুম, অর্জুন লস্কর ও বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী রবিউল এবং তারেক আহমদ। এছাড়া অজ্ঞাতনামা তিনজনকেও আসামি করেন
ধর্ষণ মামলার ছয় আসামিকে আদালতে তুলে পাঁচ দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

বিডি

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :