মাদক নির্মুলে গুরুত্বপুর্ণ ভুমিকা রাখতে পারে পারিবারিক অনুশাসন-হুইপ ইকবালুর রহিম(এমপি)

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৪ AM, ০৫ জুন ২০১৬

মোঃ নজরুল ইসলাম খান বুলু,বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) থেকে :  জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি মাদকের হিংস্র থাবা থেকে রক্ষা পেতে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার উপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন শুধু মাত্র পুলিশ ও প্রশাসন দিয়ে মাদক নির্মুল ও যুব সমাজকে রক্ষা করা যাবে না। পারিবারিক অনুশাসন, পিতা-মাতা ও অভিভাবকদের সচেতনতা মাদকদ্রব্য নির্মুলে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে। দিনাজপুর সীমান্ত এলাকা প্রতিনিয়ত মাদক হাতছানি দিয়ে যুবকদের ডাকছে। এই অভিশাপ থেকে মুক্ত হতে নতুন প্রজন্মকে আলোর পথ দেখাতে পিতা-মাতা ও অভিভাবকদের একত্রে কাজ করতে হবে মাদক নির্মুলে। তিনি বলেন, মাদক গ্রহন শুরুতেই সন্তানদের খেয়াল রাখতে হবে  পিতা-মাতা ও অভিভাবকদের। মাদকের হিংস্র থাবা এখন ক্যান্সারে রুপ নিয়েছে। এই ক্যান্সার থেকে রক্ষা পেতে  ও সুন্দর জীবনকে সর্বনাশা মাদক থেকে রক্ষা করতে মাদক মুক্ত করতে হবে দেশকে। আর এই মাদকমুক্ত করতেই শেখ হাসিনা সরকার সারাদেশে বিভিন্ন কর্মুসচী পালন করছে।
হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ৩ মে শুক্রবার দিনাজপুর জেলা প্রশাসন, জেলা তথ্য অফিস ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন কার্যালয় দিনাজপুর আয়োজিত মাদক বিরোধী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ প্রশাসক মোঃ আজিজুল ইমাম চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোঃ রহুল আমীন, দিনাজপুর সিভিল সার্জন অমলেন্দু বিশ্বাস,হাবিপ্রবির বিজ্ঞান ও পোস্ট গ্রাজুয়েট –এর ডীন প্রফেসর ড. বলরাম রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু রায়হান মিয়া, এডিএম গোলাম রাব্বানি, বিজিবি ৪২ ব্যাটালিয়ন সিও লেঃ কর্ণেল হান্নান খান, দিনাজপুর জেলা সুপার সাঈদ হোসেন, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্ত ঘোষ,সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদ সরকার, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম, সিনিয়র তথ্য অফিসার আবুল কালাম মোঃ শামসুদ্দিন প্রমুখ। এর পুর্বে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির নেতৃত্বে মাদক বিরোধী একটি বিশাল গ্রান্ড র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। দিনাজপুর সরকারী কলেজ, আমেনা বাকী রেসিডেন্সিয়াল স্কুল, অশ্রু, ভাবনা ও নতুন ভাবনা মাদকাসয় নিরাময় কেন্দ্র, ইসলামী ব্যাংক, পলেটিকটেকনিক ইনস্টিটিউট, দিনাজপুর হাসপাতালের নার্স, চিকিৎসক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, পুলিশ, বিজিবি, গ্রাম পুলিশ, বিভিন্ন এনজিও, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীসহ কয়েক’শ সংগঠন মাদককে না বলুন, মাদক জীবন, পরিবার, দেশ, জাতী ও অর্থনৈতিকে ধ্বংস করছে সম্মিলিত ব্যানার নিয়ে র‌্যালীতে অংশগ্রহন করে। আসুন মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্ছার হই এবং নতুন প্রজন্মকে মাদক মুক্ত দেশ ও জাতী উপহার দেই এই শ্লোগান শহরকে প্রকম্পিত করে তোলে।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :