ভ্রাতৃপ্রতিম বাংলাদেশ ও ভারতের বন্ধুত্ব আরো সুদৃঢ় হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:৩৭ AM, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট চালুর ফলে ভ্রাতৃপ্রতিম বাংলাদেশ ও ভারতের বন্ধুত্ব আরো সুদৃঢ় হবে বলেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল(এমপি)।
তিনি বলেন, এর ফলে দু’দেশের মানুষের সম্পর্ক আরো জোরদার হবে। ব্যবসা-বাণিজ্যে ব্যাপক প্রসার ঘটবে এবং পর্যটনের ক্ষেত্রেও অভাবনীয় উৎকর্ষ হবে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বৃহস্পতিবার দুপুরে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ইমিগ্রেশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যোগ্য নেতৃত্বে দুই দেশের সম্পর্কের যে সেতুবন্ধন তৈরি হয়েছে তা উত্তরোত্তর আরো বাড়ছে।
আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, দুই দেশের দুই নেতার সুসম্পর্কের কারণে ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে। তারা প্রাণ খুলে নিশ্বাস নিচ্ছে, হাসছে।
অনুষ্ঠানে ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জেনারেল (অব.) ড. বিজয় কুমার সিং উপস্থিত ছিলেন।
প্রতিমন্ত্রী জেনারেল (অব.) ড. বিজয় কুমার সিং বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম। বাংলাদেশের প্রতি আমার গভীর ভালোবাসা রয়েছে। এ বন্দর উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে মৈত্রী, বাণিজ্য, পর্যটন, শিক্ষা-সংস্কৃতি, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন বিষয়ে উভয় দেশই লাভবান হবে।
এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল হেলিকপ্টার যোগে পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়ন মাঠে অবতরণ করেন। তিনি সেখান থেকে সড়ক পথে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আসেন।
বিকেল ৩টার দিকে ভারতীয় প্রতিনিধি দল ভারতের ফুলবাড়ি সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পঞ্চগড়-২ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন, ভারতের দার্জিলিংয়ের সংসদ সদস্য সুরিন্দর সিং আলুআলিয়া, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের মিউসিপ্যাল অ্যাফেয়ারর্স মিনিস্টার ফিরহাদ হাকিম, ডেভেলপম্যান্ট ডিপার্টম্যান্ট মিনিস্টার গৌতম দেব ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোজাম্মেল হক খাঁন বক্তব্য রাখেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আবু হাকিম মোহাম্মদ নওশাদ, পুলিশ সুপার মো. গিয়াসউদ্দিন আহমদ, ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোয়াজ্জেম আলী, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, ডেপুটি হাই কমিশনার অভিজিত চট্টোপাধ্যায় ও পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন  ।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :