বেওয়ারিশ কুকুরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ দিনাজপুর পৌরবাসী

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৪১ AM, ০২ জুন ২০১৬

দিনাজপুর সংবাদদাতা : দিনাজপুর পৌর এলাকায় মালিক বিহীন কুকুরের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে পরেছে এলাকাবাসী। পৌর কতৃপক্ষের উদাসিনতা ও গুরুত্ব হীনতার কারনে দিনদিন অবাঞ্ছিত কুকুরের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে মনে করেন সচেতন এলাকার মানুষ। মাঝে মধ্যে মালিক বিহীন কুকুরের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হলেও বেশ কিছু দিন থেকে রয়েছে তা বন্ধ। ফলে দিনদিন কুকুরের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে শিশুরা এই কুকুরের শিকার হচ্ছে। শিশুর কাছ থেকে কুকুর প্রকাশ্যে বিস্কুট, কেকসহ নানা খাদ্য দ্রব্য ছিনিয়ে নিচ্ছে। অনেক শিশু ও নানা বয়সের মানুষ কুকুরের কামড় খেয়ে হাসপাতালে যাচ্ছেন। দিনাজপুর শহরের রামনগর চামড়াপট্টির কুকুর মোটা তাজা ও ভয়ংকর প্রকৃতির এছাড়াও দক্ষিন বালুয়াডাঙ্গা মিনার মসজিদ মোড় সংলগ্ন ঈদগা মাঠটি যেন কুকুরদের একটি আড্ডা খানায় পরিনত হয়। সে সময় সেখান দিয়ে যে কোন সাধারণ মানুষ চলাচল করতে ভয় পায়। অন্যদিকে এন.এ মার্কেটের মাংসের বাজারে ও রামনগর মাংসের বাজারের কুকুর এতই ভয়ংকর যে মানুষ হাত থেকে মাছ, মাংস, বিভিন্ন খাবারের ব্যাগ ঝাপটি মেরে নিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এছাড়া বাস টার্মিনাল, সুইহারী, চৌরঙ্গী মোড়, কালিতলা, মর্ডাণ মোড়, লিলিমোড়, বাহাদুর বাজার, রেল স্টেশন, পাহারপুর, অন্ধ হাফের মোড়, বালুয়াডাঙ্গা ট্যাম্পু ষ্ট্যান্ড ও বালুবাড়ীসহ দিনাজপুর শহরের প্রতিটি মহল্লায় একই অবস্থা বিরাজ করছে। বিশেষ করে যারা রাত্রে কর্মস্থল থেকে বাড়ী ফিরে ফিরেন তারা এই কুকুর নিয়ে সমস্যার সন্মুখিন হয়। শিশুরা কুকুরের কারণে একা চলা ফেরা করার বা স্কুল যাওয়ার সাহস পায়না। এব্যাপারে ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুকে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করা হলে তিনি ৪/৫ দিনের মধ্যে কুকুর উচ্ছেদের ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে জানান। কিন্তু প্রায় ১০ দিন অতিবাহীত হলেও তিনি এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি।

জনদুর্ভোগ

আপনার মতামত লিখুন :