1. [email protected] : admin : Antar Roy
  2. [email protected] : Bidhan Das : Bidhan Das
  3. [email protected] : tkeditor :
মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ০৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীকে ঘরে থাকার আকুতি জানিয়ে সাবেক এমপি লিটা’র খোলা চিঠি !

  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০
  • ১৬৩ পঠিত

বাংলাদেশে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই সংক্রমণের সংখ্যা হিসেবে উৎসস্থল চীনকে ছাড়িয়ে এশিয়ার ৪৯ দেশের মধ্যে ৬ নম্বরে উঠে এসেছে বাংলাদেশ।গত ২৪ ঘন্টায় ৩৮ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ২০৯ জন। একই সময়ে নতুন করে ৩০৯৯ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। তাদের নিয়ে বাংলাদেশে করোনায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৯০ হাজার ৬১৯ জনে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা সোমবার দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন।

এদিকে গত দুই দিনে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারি দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তিনজন গুরুত্বপূর্ণ নেতার করোনায় মৃত্যু হওয়ায় প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন দলের তৃণমুল নেতারা। তাঁরা বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় নেত্রীকে বাহিরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে চলেছেন ক্রমাগত।

এবার প্রাণপ্রিয় নেত্রীকে অদৃশ্য জীবাণু করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত রাখতে খোলাচিঠি লিখেছেন সংরক্ষিত আসন ৩০১ এর সাবেক সংসদ সদস্য ও ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সেলিনা জাহান লিটা।

তাঁর সেই চিঠিটি হুবহু ঠাকুরগাঁওয়ের খবরের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

প্রিয় নেত্রী,
আপনি গুলি, বোমা, গ্রেনেড সবকিছু মোকাবিলা করেছেন। আপনি আল্লাহ্ কে বিশ্বাস করেন।আপনি সৎ, পরিশ্রমী, আত্মনির্ভরশীল, আত্মবিশ্বাসী, পরোপকারী, দরদী, সাহসী।

আমরা আপনার ক্ষুদ্র কর্মী হলেও আপনার অন্তর্নিহিত ভাষা কিছুটা বুঝতে পারি। একে একে আপনার বুকের পাঁজরের ভেতরে বসবাস করা শক্তি ক্ষয়ে যাচ্ছে প্রাকৃতিক নিয়মেই আপনি নিজে বুঝেছেন কিন্তু আমাদের সাহস যুগিয়েই যাচ্ছেন।
তাইতো চিৎকার করে না কাঁদলেও গলাধরে যায়।যখন প্রিয় সহকর্মীরা প্রাকৃতিক নিয়মে চলে যায়।মানুষ আপনাকে অনেকভাবেই চেষ্টা করেছে ক্ষতি করার পারেনি।

আজ প্রকৃতি বিভিন্নভাবে পরীক্ষা নিচ্ছে কিন্তু আপনাকে কোনভাবেই দমাতে পারেনি আল্লাহ্ ভরসা পারবেও না।
বিভিন্ন নামে বিভিন্নভাবে ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প, ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া এসেছে কিন্তু সকল প্রস্তুতি রেখেছেন আপনি।

প্রিয় নেত্রী,
আজ আবারও একটি দাবী নিয়ে এসেছি আপনার কাছে।না না, কোন নন এমপিও শিক্ষকের এমপিও ভুক্তির জন্য নয়, তাঁরা এখন অনেকেই নীতিমালা অনুযায়ী এমপিও ভুক্ত।আপনি দীর্ঘদিনের দাবী পুরন করেছেন এবং আরো যারা আছে তাদের শর্ত পুরণে নির্দেশনা দিয়েছেন।

গার্মেন্টস শ্রমিকের পক্ষে দাবী? না নেত্রী তাও নয়, অতিতে তাদের বেতন ভাতা বৃদ্ধির নির্দেশনায় তাদের দাবী পুরণ হয়েছে। তাদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন, গার্মেন্ট মালিকদের প্রণোদনা দিচ্ছেন।সামাজিক নিরাপত্তা খাতের আওতায় নিয়ে এসেছেন অসহায় মানুষকে।

বেকার যুব সমাজের পক্ষে? না নেত্রী, যদিও অনেক সমস্যা তবুও আপনি তাদের জন্য সরকারি চাকরির পাশাপাশি আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে কাজ করার সুযোগ দিচ্ছেন। বিনা সুদে ঋণ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার ইঞ্চি ইঞ্চি ভূমি যেন কাজে লাগায় উদ্যোক্তা হওয়ার সুযোগ দিয়েছেন।

আপনার প্রিয় নারী সমাজের জন্য? না, তাও নয় নেত্রী, কারণ আপনার প্রিয় মেয়েরা এখন উদ্যোক্তা হয়ে আত্মনির্ভরশীল হতে চায়।তাদের বুদ্ধিমত্তা দিয়ে দেশের বিভিন্ন পদে অধিষ্ঠিত পার্লামেন্টে, সচিবালয়ে, মাঠ পর্যায়ে প্রসাশনের বিভিন্ন চেয়ারে,সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠের সর্বোচ্চ চেয়ারে, বিচার বিভাগে, পুলিশ বাহিনী, সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, সীমান্তে অর্থাৎ জলে, স্থলে, অন্তরীক্ষে আপনার অনুপ্রেরণা, সাহস এবং সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে স্ব স্ব জায়গায় সততা, নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।
আর যারা এখনো পারেনি তারাও অনেক ধৈর্য্য নিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।আপনার মেয়েরা এখন প্রতিবাদী, আর কুসংস্কারের বলি হতে চায়না, বাল্যবিবাহ বন্ধ করে।এমন সাহস সঞ্চয় করেছে আপনার কাছেই।

আপনি বিশাল জনগোষ্ঠীর দেশ বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত করেছেন। আজ বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে রুপান্তরিত করেছেন।

বাংলাদেশের মানুষের আপনার প্রতি কোন অনুযোগ, অভিযোগ নেই।যারা বিরোধীতার খাতিরে বিরোধীতা করে তারা নিজে টিকে থাকার জন্য করবেই। আপনি সেজন্য বিচলিত নয় জানি। অভ্যন্তরে তারাও আপনার কাজের, ধৈর্যের,বিচক্ষণতার প্রসংশা করেন।

আপনি সবার কথা ভাবেন, নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন বাংলাদেশের মানুষের জন্য।আপনি অকুতোভয়, আপনি বঙ্গবন্ধু কন্যা আপনার পক্ষেই সম্ভব বুকের ভেতরে ছোট্ট হৃদয়ের বিশাল যায়গায় সবার স্থান দলমত নির্বিশেষে।

তাইতো আপনি একজন মায়ের গভীর দরদ, ভালবাসা, সহানুভূতি নিয়ে ছুটে গিয়েছিলেন কোকোর লাশের পাশে।আপনি মানবিক বলে বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরের অসুস্থতায় পাশে থাকার কথা ব্যক্ত করেছেন। আপনি দলমতের কথা বিচার না করে সকলের জন্য চিকিৎসা সেবা সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ করেছেন সকল সুবিধা বাংলাদেশের মানুষ পাচ্ছে।তাহলে আপনি কেন নয়!?

প্রিয় নেত্রী!

আপনি ছাড়া আমরা অসহায়! আমাদের কথা ভেবেই আপনি সুরক্ষিত থাকুন।আপনি ভিডিও কলে কথা বলুন, মিটিং করুন, আপাতত স্বশরীরে জনসম্মুখে, পার্লামেন্টে না আসার জন্য আকুল আবেদন করছি।

করোনা মহামারী দুর্যোগ কেটে গেলে, বাংলাদেশ স্থিতিশীল হলে,আবার আমরা সামনে বসে আপনার স্নেহের পরশ নেবো! কতদিন আপনার ঐ নরম সোনার হাতের পরশ পাইনি! আমরা আকুল হয়ে অপেক্ষা করছি। আপনার আল্লাহর প্রতি অগাধ বিশ্বাস।নামাজ, কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে দোয়া, নিশ্চয়ই সৃষ্টিকর্তা প্রসন্ন হবেন।আর সেইদিনের অপেক্ষায় রইলাম।
আমাদের আবেদনটি আমলে নিয়ে অদৃশ্য জীবাণু করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় আপনি সুরক্ষিত থাকুন এই প্রত্যাশায়।

আপনার প্রিয় জনমানুষের পক্ষে-
সেলিনা জাহান লিটা
সাবেক সংসদ সদস্য ৩০১
দশম সংসদ

সহ সভাপতি জেলা আওয়ামীলীগ
ঠাকুরগাঁও

বিডি

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর :

  © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ঠাকুরগাঁওয়ের খবর

Theme Customized By Arowa Software
You cannot copy content of this page