1. [email protected] : admin : Antar Roy
  2. [email protected] : Bidhan Das : Bidhan Das
  3. [email protected] : tkeditor :
মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন

প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব বলতে সাইনবোর্ড, সব শিক্ষার্থী ভূয়া! তারপরও এমপিওভুক্তির তালিকায় নাম

  • প্রকাশিত: শনিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৪৯ পঠিত

নড়াইল : নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নওগ্রাম ইউনিয়নের চরব্রাহ্মণডাঙ্গা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসাটি চলতি বছরের ১২ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী এমপিওভুক্তির তালিকায় নাম ওঠে। অথচ তখন পর্যন্ত এ নামে কোনো প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্বই জানতেন না এলাকার কেউ।

মাস দেড়েক আগে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি যখন একটি টিনের ঘর তোলা হয়, তখনই তা সবার চোখে পড়ে। যদিও এখন পর্যন্ত ঘরটির বেড়া দেয়া হয়নি। নেই কোনো বেঞ্চ, চেয়ার, টেবিল বা অন্য কোনো আসবাব। এমনকি কোনো শিক্ষার্থীও নেই। ফাঁকা মাদ্রাসা ঘরে চরে গরু-ছাগল।

স্থানীয়রা জানান, কিছুই নেই, অথচ হঠাৎ গজিয়ে ওঠা মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠা নাকি কাগজ-কলমে ১৯৮২ সালে দেখানো হয়েছে। এ মাদ্রাসায় কখনও ক্লাস হয়নি। অথচ প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস দেখানো হয়েছে।

এ বছর এ মাদ্রাসা থেকে ১২ শিক্ষার্থী লোহাগড়ার নখখালী দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে অংশ নিতে গেলে তারা সবাই ভুয়া বলে ধরা পড়ে। দুই বিষয়ে অংশ নেয়ার পর তারা আর কেন্দ্রে যায়নি।

এ বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসসহ বিভিন্ন দফতরে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চিঠি দিয়েছেন বলে তারা জানান।

লোহাগড়া উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার ও নখখালী পরীক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদুল করিম বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার দুটি বিষয়ে অংশগ্রহণের পর চর-ব্রাহ্মণডাঙ্গা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসার ১২ শিক্ষার্থী আর পরীক্ষা দিতে আসেনি।

বিষয়টি নিয়ে নওগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক সদস্য খায়রুল ইসলাম বলেন, দেড় মাস আগে হঠাৎই মাদ্রাসাটি গজিয়ে ওঠে। মাদ্রাসাটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি শিক্ষক নিয়োগে জনপ্রতি ৫-৬ লাখ টাকা করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

কিভাবে এমন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির তালিকায় এল জানতে চাইলে জেলা শিক্ষা অফিসার এসএম ছায়েদুর রহমান বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে ইবতেদায়ি মাদ্রাসা এমপিওভুক্তির ঘোষণা এসেছে। তবে এখনও যাচাই-বাছাই চলছে। কোনো মাদ্রাসাকে এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। যোগ্যতা অনুযায়ী এ প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির পর্যায়ে পড়লে তবেই চূড়ান্ত করা হবে।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে মাদ্রাসাটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুল আহাদ সংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে অপরাগতা প্রকাশ করেন।

ঠাখ/ডেস্ক/বিডি

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর :

  © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ঠাকুরগাঁওয়ের খবর

Theme Customized By Arowa Software
You cannot copy content of this page