পীরগঞ্জে বিকাশ ব্যবসায়ী হত্যায় জড়িত দুই হত্যাকারি র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার !

নিজস্ব প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে চাঞ্চল্যকর বিকাশ ব্যবসায়ী হত্যাকান্ডে জড়িত দুই হত্যাকারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১৩’র একটি চৌকষ দল।গতকাল বুধবার (২৮ জুলাই) দিবাগত রাতে দিনাজপুর কোতয়ালী থানাধীন খানপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সন্ধ্যায় এক প্রেস রিলিজের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১৩, ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট, সহকারী পরিচালক (মিডিয়া), মাহমুদ বশির আহমেদ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- পীরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ মাধবপুর এলাকার মোঃ আরিফুল ইসলাম (৩২) ও অপরজন বিশ মাইল চন্দরিয়া এলাকার মোঃ মেজবাউল ইসলাম (১৮)।

প্রেস রিলিজে জানানো হয়, গত ১৯ জুলাই রাতে বিকাশ ব্যবসায়ী ইসহাক আলী (৩৮) তার নিজ দোকান হতে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ী যাওয়ার পথে অজ্ঞাত কয়েকজন লোক তার চোখে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে তার পথ রোধ করে গলা কেটে হত্যা করে।এই হত্যাকান্ডের প্রেক্ষিতে ভিকটিমের বড় ভাই বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। উক্ত ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গনমাধ্যমে প্রচারিত হলে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চ্যলের সৃষ্টি হয়। এরই প্রেক্ষিতে, র‌্যাব-১৩ উক্ত ঘটনার ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১৩, সিপিসি-১, দিনাজপুর এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে দিনাজপুর জেলার কোতয়ালী থানাধীন খানপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে চাঞ্চল্যকর ইসহাক আলী হত্যা মামলার সনাক্তকৃত আসামী মোঃ আরিফুল ইসলাম ও মোঃ মেজবাউল ইসলামকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয় হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং ভিকটিমের কাছে থাকা দুই লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার জন্যই তারা এই হত্যাকান্ডটি করেছে বলেও স্বীকার করে তারা।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ জুলাই দিবাগত রাতে বিকাশ ব্যবসায়ী ইসাহাক আলী ব্যবসা-বাণিজ্য শেষ করে বিকাশে লেনদেনের নগদ টাকা সাথে নিয়ে মটরসাইকেলযোগে বাড়ী ফেরার পথে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার জাবরহাট ইউনিয়নের করনাই গ্রামে তার বাড়ীর কাছাকাছি এলাকায় পৌছালে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা ছিনতাইকারিরা তার পথরোধ করে চোখে মরিচের গুড়া ছিটিয়ে টাকা-পয়সা লুট করে তাকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরদিন পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইসাহাক আলীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের বড়ভাই বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে পীরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

বিডি

Leave a Reply