ধর্ষণের পর হত্যা করে মেয়েটির লাশ পানিতে ডুবিয়ে রাখে ধর্ষকরা !

চাঁদপুর : জান্নাতুল নাঈম মিশু (১৪) নামে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ পানিতে ডুবিয়ে রেখেছে ধর্ষকরা। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুরের কচুয়ায়।

জানা গেছে, মিশুর বাড়ি চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার ৯নং কড়ইয়া ইউনিয়ন। পড়াশোনা করত এম এ খালেক মেমোরিয়াল হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণিতে। গত শুক্রবার (৩১ জুলাই) দুপুরে বাড়ির পাশে ঘাস কাটতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। এরপর রবিবার (২ আগস্ট) পাশের খাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, ঘটনার দিন দুপুরে বাড়ির পাশে ঘাস কাটতে গিয়েছিল সে। আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। পরে বাড়ির লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি করতে গিয়ে ঘাস কাটার জায়গায় ওড়না ও কাস্তে দেখতে পায়। তবে মিশুকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

পরে কচুয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। রবিবার বাড়ির কাছেই খালে তার লাশ দেখা যায়। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।

স্থানীয়দের দাবি, মিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ পানিতে ডুবিয়ে দেয়া হয়েছিল। অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবিতে এলাকাবাসী দফায় দফায় মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিলও করেছে।

এ বিষয়ে কচুয়া থানার ওসি ওয়ালিউল্লাহ অলি গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা লাশটি উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে সোমবার (৩ আগস্ট) ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিডি

Leave a Reply