ধর্ষকের ফাঁসির দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের প্রতিবাদী অবস্থান

Bidhan DasBidhan Das
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:১৯ PM, ১০ অক্টোবর ২০২০

জাহিদ হাসান মিলু, ঠাকুরগাঁও : দেশব্যাপী নারী ধর্ষণ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবাদী অবস্থান ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে শহরের প্রাণকেন্দ্র চৌরাস্তায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আয়োজনে এ কর্মসুচি পালন করা হয়।

ঘন্টাব্যাপি এই প্রতিবাদী সমাবেশে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রফেসর মনতোষ কুমার দে, প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক পার্থ সারথী দাস, নিশ্চিন্তপুর থিয়েটারের সভাপতি রাশেদুল আলম লিটন, সাধারন সম্পাদক নুরে আলম উজ্বল, শাপলা নাট্য গোষ্ঠির সভাপতি রুপকুমার গুহ ঠাকুরতা কড়ি, সাধারন সম্পাদক আলমগীর হোসেন, গ্রীন থিয়েটারের সাধারন সম্পাদক মামুন, গণসংগীত মঞ্চের সভাপতি ও বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী মোজাম্মেল হক বাবলু, তারুণ্য একাডেমির পরিচালক প্রীতি গাঙ্গুলী, বটমূল সাংস্কৃতিক সংগঠনের পরিচালক সাইফুল ইসলাম বাবু, নীল পলাশ একাডেমির সভাপতি আরিফ হোসেন, নৃত্যালয়ের পরিচালক রোহিত খান তুহিন সহ জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধি, সংগীত, নৃত্য ও নাট্য শিল্পী ও কলাকুশলীরা অংশগ্রহণ করেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন সময় পাকসেনা ও এদেশীয় দোসররা নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন শুরু করে। দেশ স্বাধীনের পর থেকে ক্ষমতাসীন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় ও দলীয় ক্ষমতাকে ব্যাবহার করে এখনো ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে কিছু সুযোগ সন্ধানিরা। তাই এই ব্যাধি নির্মুলে সরকারকে প্রধান ভূমিকা পালন করতে হবে। এজন্য ধর্ষকরা যে দলেরই হোকনা কেন তাদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ সাঁজা ফাঁসি সরকরি ভাবে এ আইন কার্যকর করতে হবে।

যতদিন ধর্ষকের সাাঁজা ফাঁসি কার্যকর করা না হবে ততদিন পর্যন্ত সাংস্কৃতিক কর্মীরা রাজপথে থেকে প্রতিবাদ জানাবে এবং আরো কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলে দাবী আদায় করবে।

বিডি

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :