দুই বছর পরপর বিশ্বকাপ চান রোনালদো

স্পোর্টস্ ডেস্ক : পৃথিবী এগিয়ে গেছে বহুদূর, গত ১০০ বছরে বদল এসেছে অনেক কিছুতে। কিন্তু চার বছর পর পর বিশ্বকাপ-এই নিয়মের হয়নি বদল। যুগের সঙ্গে তাল মেলাতে তাই প্রয়োজন পরিবর্তনের। দুই বছর পরপর বিশ্বকাপ আয়োজনের যে পরিকল্পনা ফিফা নিয়েছে, সে বিষয়ে নিজের মত জানাতে গিয়ে এসব যুক্তিই তুলে ধরলেন দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার রোনালদো।

ফুটবলের এই পরিবর্তনের দাবি রোনালদোর মতে ‘স্বাভাবিক বিবর্তন’ এবং ‘নতুন প্রজন্মের সঙ্গে বদলে চলার জন্য’।

কাতারের দোহায় শুক্রবার শেষ হয়েছে ছেলেদের ফুটবলের ভবিষ্যত নিয়ে ফিফার টেকনিক্যাল অ্যাডভাইসরি গ্রুপের দুই দিনের সম্মেলন। আন্তর্জাতিক ম্যাচের বার্ষিক সূচি নতুন করে সাজানোর যে প্রস্তাব ফিফা দিয়েছে তা কতটা বাস্তবসম্মত, সম্মেলনে এ নিয়ে নিজেদের মত দেন সাবেক তারকা ফুটবলাররা। দুই বছর পরপর বিশ্বকাপ আয়োজনের যে ধারণা ফিফার বিশ্ব ফুটবল ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান আর্সেন ভেঙ্গার দিয়েছেন, তার পক্ষে এসব কথা বলেন ব্রাজিলের হয়ে ৯৮ ম্যাচ খেলা রোনালদো।

“পরিবর্তনের ব্যাপারে আমি খুবই ইতিবাচক। আমার কোনো দ্বিমত নেই এবং সন্দেহ নেই যে (পরিবর্তনের পরও) বিশ্বকাপ এই গ্রহের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ ইভেন্ট হয়েই থাকবে।”

“বিশ্বকাপের বর্তমান এই ক্যালেন্ডার নিয়ে আলোচনা চলছে, এটি প্রায় ১০০ বছর আগের, আর এই সময়ে বিশ্ব আমূল বদলে গেছে। আমার বিশ্বাস, নতুন প্রজন্মের জন্য এটি পরিবর্তনের সময় এসেছে- আমাদের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং আমি এটা বিশ্বাস করি।”

উদাহরণ হিসেবে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ প্রসঙ্গ টেনে আনেন রোনালদো। এই পরিবর্তন তার মতো আরও অনেক তরুণের স্বপ্নপূরণের দুয়ার খুলে দেবে বলে তার বিশ্বাস।

“উদাহরণ হিসেবে বলা যায়….রাশিয়া বিশ্বকাপ কতটা অসাধারণ ছিল। এটা ছিল অবিশ্বাস্য: দুর্দান্ত সব ম্যাচ, দারুণ একটি প্রদর্শনী। মাঠের বাইরে সবকিছুই ছিল ঠিকঠাক। এমন প্রতিযোগিতা আমরা মিস করি, আর চার বছর ব্যবধানটা অনেক বেশিই লম্বা। তাই আমার মনে হয় অনেক দেশই এই পরিকল্পনার পক্ষে আসবে, কারণ এক্ষেত্রে তাদের বিশ্বকাপে অংশগ্রহনের সুযোগ বাড়বে।”

“মনে পড়ে, ছোটবেলায় আমার স্বপ্ন ছিল বিশ্বকাপে খেলার। আমার সব বন্ধু-বান্ধবদেরও স্বপ্ন ছিল বিশ্বকাপে খেলার। এই পরিবর্তনের ফলে আরও অনেক মানুষ তাদের স্বপ্ন পূরণে সক্ষম হবে।”

ফিফার এই প্রস্তাবের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্তা সংস্থা উয়েফা। লাতিন আমেরিকাও এর বিপক্ষে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। তবে রোনালদো মনে করেন, এটাই সঠিক পথ।

“আমার মনে হয় আমরা সঠিক পথেই আছি; বার্তাটা খুবই ইতিবাচক। শুরুতে কিছু লোকের জন্য এটা বুঝে উঠতে অসুবিধা হতে পারে। তবে আমি মনে করি, এটা খুবই সাধারণ এবং এটা খুবই বস্তুনিষ্ঠ ও স্বচ্ছ। এতকিছু পরিবর্তনের চিন্তা করা হয়েছে যাতে খেলোয়াড়দের ভ্রমণ কম হয় এবং ফুটবলপ্রেমীরা আরও ভালো ফুটবল উপভোগ করতে পারে।”

ডেস্ক/বিডি

Leave a Reply