ঠাকুরগাঁওয়ে হাসান এক্সরে ও জেনারেল হাসপাতালে রোগীদের চরম ভোগান্তি; স্বজনদের ক্ষোভ

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৩১ PM, ২৬ জানুয়ারী ২০১৬

ঠাকুরগাঁওয়ের খবর : ঠাকুরগাঁও শহরের হাসান এক্সরে ও জেনারেল হাসপাতালে রোগীদের চরম ভোগান্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে ক্ষুদ্ধ রোগীর স্বজনেরা।
মঙ্গলবার দুপুরে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্বজনদের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। বাকবিতন্ডার সৃষ্টির কারণ দিনের বেলায় পৌরসভার গাড়িতে ক্লিনিকের মল বের করা ও কর্তৃপক্ষের অবহেলা।
এসময় রোগীর স্বজনরা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, দিনের বেলায় ক্লিনিকের মল বের করায় গোটা এলাকায় দূর্গদ্ধে পরিণত হয়। এতে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েন রোগীরা। মূহুর্তেই দূর্গন্ধ ছড়িয়ে পরে েআশেপাশের এলাকায়। এছাড়া ক্লিনিকে যে কোন জটিল অপারেশন করাতে গিয়ে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের লোকজন রোগী ও স্বজদের সাথে খারাপ আচরণ করে। নেয়া হয় অতিরিক্ত টাকা। প্রতিটি রুমে অপরিস্কার আর দূর্গন্ধযুক্ত অবস্থায় থাকতে হয় রোগীদের। ভুক্তভোগীরা এর মূল কারণ হিসেবে দায়ি করেন কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর প্রশাসনের নজরদারির অভাবকে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্লিনিকগুলোতে নিয়মিত অভিযান অব্যাহত রাখলে রোগীরা কিছুটা হলেও সেবা পাবে বলে মনে করে রোগীর স্বজরা।

তারা আরো জানান, রোগীর স্বজনদের অনেকেই মোবাইল ফোনে হাসপাতালের সিভিল সার্জন নজরুল ইসলামকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি  বলেন লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নিবেন। তাহলে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের দায়িত্ব কি? রোগীরা অবহেলার শিকার হবেন আর তারা লিখিত অভিযোগ চাইবেন। আমরা চাই জেলা প্রশাসন এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিবেন।
এ বিষয়ে হাসান এক্সরে  ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ময়নুল ইসলাম মানিক জানান, দিনের বেলায় কেন মল বের হয়েছে তা আমার জানা নেই। আর ক্লিনিকে রোগীদের প্রতি অবহেলার বিষয়ে তিনি অস্বীকার করেন।
আর হাসাপাতালের সিভিল সার্জন  নজরুল ইসলাম জানান, লিখিত অভিযোগ না পেলেও কোন রিপোর্ট পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ওই ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জনদুর্ভোগ

আপনার মতামত লিখুন :