ঠাকুরগাঁওয়ে জাল কাগজ দিয়ে ভুমি সেবা নিতে গিয়ে ধরা; আসামীকে থানায় হস্তান্তর

Bidhan DasBidhan Das
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:২০ AM, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে জমির জাল খারিজ খতিয়ান কপি, জাল ডিসিআর কপি এবং জাল খাজনার রশিদ নিয়ে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে সরকারি সেবা গ্রহণ করতে গিয়ে ধরা পড়েছে  মো: রাহাত হক (৪০) নামে এক ব্যক্তি। তিনি রাজশাহী জেলার রাজশাহী উপশহর এলাকার মৃত: ফরিদ সিদ্দিক এর ছেলে।

গত ৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা ভূমি অফিসে এ ঘটনা ঘটে। পরে এ ঘটনায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট ঠাকুরগাঁও সদর মোঃ কামরুল হাসান সোহাগ কর্তৃক পরিচালিত ১৮/২০২০ নম্বর মোবাইল কোর্ট এর এক আদেশের মাধ্যমে আটক আসামীকে সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়।

জানা যায়, গত ৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে ভূয়া ও জাল কাগজপত্র নিয়ে সরকারি সেবা নিতে যায় রাহাত হক নামে এক ব্যক্তি। এসময় তার জমাকৃত কাগজপত্র সন্দেহাতীত হওয়ায় অফিস স্টাফ চন্দন কুমার দে বিষয়টি ভূমি কর্মকর্তাকে অবহিত করেন।

পরে ভূমি কর্মকর্তা মোঃ কামরুল হাসান সোহাগ রাহাত হকের দেওয়া কাগজপত্র যাচাই করে দেখেন তার দেওয়া কাগজপত্রগুলো জাল। এসময় তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে রাহাত হককে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি তার দোষ স্বীকার করে নেন এবং ভবিষ্যতে এমন অপরাধ না করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

কিন্তু অভিযুক্ত ব্যক্তির অপরাধটি মোবাইল কোর্টের তফসীলভূক্ত আইনসমূহের আওতাধীন না হওয়ায় মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯-এর ৬(৫) ধারা বিধানমতে দাখিলকৃত অভিযোগটি এজহার হিসেবে গণ্য করার জন্য অভিযুক্ত ব্যক্তিকে সদর থানায় হস্তান্তর করেন।

ভূয়া কাগজপত্র দাখিল করে সরকারি সেবা নিতে গিয়ে একজনকে আটক করে থানায় হস্তান্তর করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা মোঃ কামরুল হাসান সোহাগ।

বিডি

 

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :