ঠাকুরগাঁওয়ের নাগর নদীতে দেখা মিলেছে কুমিরের দল, আতঙ্কে এলাকাবাসি

Bidhan DasBidhan Das
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:০৮ PM, ২৬ অগাস্ট ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী ও হরিপুর উপজেলার ভারত সীমান্তসংলগ্ন নাগর নদীতে ৬-৭ ফুট লম্বা বেশকটি কুমিরের দেখা মিলেছে। নদীতে কুমির দেখার পর জেলেরা প্রাণের ভয়ে মাছ ধরতে নদীতে নামছে না। কুমির আতঙ্কে ভুগছেন গ্রামবাসী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দলবদ্ধ একটি কুমিরের ঝাক হঠাৎকরে ভেসে উঠছে। তাদের মধ্যে ১টার ওজন ৫০ থেকে ৬০ কেজির মত হবে। সাথে ছোট-মাঝারি মিলিয়ে আরোও অনেক কুমির ছিলো।

উত্তর নিটালডোবা গ্রামের হালিমার মেয়ে লাবনী বলেন, তিনি দূর থেকে কুমিরটির ছবি তুলেছেন। তবে অনেক মানুষের সমাগম দেখে মুহূর্তের মধ্যে কুমিরটি পানিতে ডুব দিলে আর দেখা যায়নি।

গ্রিনল্যান্ড টি কোম্পানির মালিক ফয়জুর রহমান বলেন, ওই নদীতে কুমির রয়েছে। তবে নিদিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না কোন এলাকায়।

পাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান জানান, ৬-৭ দিন আগে হরিপুর উপজেলার জাদুরাণী এলাকায় একই নদীতে স্থানীয়রা কুমির দেখতে পান।

বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) ডাবরী বিওপির কোম্পানি কমান্ডার নায়েক সুবেদার মিজানুর রহমান বলেন, পাঁচ-ছয়টা কুমির দেখা মিলেছে। তারা এ ব্যাপারে স্থানীয় জেলেদের নদীতে নামতে সতর্ক করেছেন।

বন বিভাগের কর্মকর্তা হরিপদ দেবনাথ বলেন, তিন দিন আগে কুমির দেখা মিললেও এখন নেই।

জেলা মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা আফতাব হোসেন বলেন, সরেজমিন দেখে জেলেদের বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানাবে।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, তিনি বিষয়টি জেনেছেন, প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

গ্রামবাসী ও স্থানীয় প্রশাসনের দাবি, এ বছর বন্যায় এলাকা প্লাবিত হয়। বন্যার পানিতে কুমিরগুলো ভারত থেকে এই নদীতে ঢুকে পড়েছে বলে তাদের ধারণা।

বিডি

জনদুর্ভোগ

আপনার মতামত লিখুন :