ঠাকুরগাঁওয়ের অসহায় সেই শান্তি রানীকে দুই মাসের খাদ্যসামগ্রী দিল স্কুলছাত্রী মুক্তা !

Bidhan DasBidhan Das
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৪৪ PM, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি : গত রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রকাশিত “অসহায় শান্তি রানীর ভাগ্যে কি নেই সরকারি সুবিধা” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর ঠাকুরগাঁও সেন্ট মাদার তেরেসা স্কুলের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী মুক্তা আক্তার তার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। নিজের জন্মদিনের উপহার স্বরূপ প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে অসুস্থ্য বৃদ্ধ শান্তি রানী (৫২)কে কিনে দিয়েছেন দুই মাস চলার মতো খাদ্য সামগ্রীসহ শাড়ী-কাপড়।

মুক্তা আক্তার সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের সাংবাদিক আব্দুল লতিফের মেয়ে।

এর আগে চলতি বছরের ২৫ এপ্রিল করোনা পরিস্থিতিতে অসহায়দের সাহায্যে প্রিয়জনদের থেকে পাওয়া উপহার ও স্কুলের টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে মাটির ব্যাংকে জমানো টাকা কর্মহীন, অসহায়, অসচ্ছল মানুষদের মাঝে উপহার হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিলে জমা দেওয়ার জন্য ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক কামরুজ্জামান সেলিমের হাতে তুলে দিয়ে নজির স্থাপন করেছিলো মুক্তা।

প্রসঙ্গত, স্বামী হারা ওই মহিলা তিনবেলা আহার এবং ওষুধ কেনার টাকার জন্য স্থানীয় এক চায়ের হোটেলে কাজ করতেন। করোনাভাইরাসে কারণে হোটেল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তিনি অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন। কিন্তু, অসুস্থতার জন্য তিনি আর কাজ করতে পারছে না। একমাত্র ছেলেটাও তাকে আর দেখেনা। করোনাকালে কাজ বন্ধ থাকায় সরকারি ও স্থানীয়দের কাছে কোন প্রকার সাহায্য সহযোগীতাও পাননি। স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যানের কাছে সাহায্যের জন্য গেলে তারাও খালি হাতে ফিরিয়ে দেয়। নিরুপায় হয়ে এক মুঠো আহারের জন্য বাড়ির পাশে এক হোটেলে কাজের সন্ধানে গেলে হোটেল মালিক বৃদ্ধ ভেবে তাড়িয়ে দেয়। বর্তমানে তিনি অসুস্থ্য হয়ে বিভিন্ন রোগ যন্ত্রণায় বিছানায় কাতরাচ্ছেন তিনি।

বিডি

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :