জুয়া খেলায় বাধা দেওয়ায় সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা;ভাংচুর

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:০৮ PM, ৩০ জানুয়ারী ২০১৬

ফরিদপুর সংবাদদাতা : ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলায় জুয়া খেলায় বাধা দেওয়ায় এক সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করার ঘটনা গটেছে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের বিষ্ণনদী গ্রামের সুবোধ কুন্ডুর বাড়িতে এ হামলা হয়। এসময় হামলা ঠেকাতে এলে সুবোধ কুন্ডু ও তার স্ত্রী স্বরসতী কুন্ডুকে পিটিয়ে আহত করে হামলাকারীরা।

সুবোধ কুন্ডুর ছেলে বিষ্ণ কুন্ডু বলেন, স্থানীয় কয়েক জন যুবক প্রতিদিন রাতে আমাদের বাড়ির সামনে বসে জুয়া খেলতো। বিষয়টি পুলিশকে জানালে গত বুধবার রাতে সালথা থানার এ এসআই মোশারফ হোসেন জুয়ার আসর থেকে পার্শ্ববর্তী কাগদী গ্রামের নাজমুল বিশ্বাসের ছেলে সাহিদ বিশ্বাস (২২), রণজিৎ মালোর ছেলে রতন মালো (২৫) ও ইসরাইল শেখের ছেলে লিয়াকত শেখকে (২৬) আটক করে। পরে ওই সব জুয়াড়ীরা জেল থেকে জামিনে বের হয়ে আসে। জামিনে আসা জুয়াড়ীদের মধ্যে সাহিদ বিশ্বাস ও তার ভাইয়েরা সবাই মিলে শুক্রবার বিকালে আমাদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বসতঘর ব্যাপক ভাংচুর চালায় ও ঘরে থাকা মালমাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমরা মামলা করতে চাইলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা মামলা করতে দেয়নি। তারা বিষয়টি মিমাংসা করে দিবে বলে আশ্বাস্ত করেন।

সালথা থানার এ এসআই মোশারফ হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বুধবার রাতে বিষ্ণনদী গ্রামের মালোপাড়া এলাকা থেকে ৩ জুয়াড়ীকে আটক করা হয়। এরপর তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। জুয়াড়ীরা জামিনে বেরিয়ে এসে সবোধ কুন্ডুর বাড়িতে হামলা করেছে বলে শুনেছি। এ ঘটনায় সংখ্যালঘুর পরিবার থানায় মামলা করতে আসলেও স্থানীয়রা মামলা করতে দেয়নি।

সুবোধ কুন্ডুর পুত্রবধু টুম্পা কুন্ডু অভিয়োগ করে বলেন, জুয়াড়ীরা বসতঘর ভাংচুর করার পর ঘরের মধ্যে ঢুকে আলমারী ভেঙ্গে নগত ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা ও আনুমানিক ১৮ থেকে ২০ ভরি স্বর্ণ লুট করে নিয়ে যায়। এসময় ঠেকাতে এলে আমার শশুর-শাশুরীকে মারপিট করে। এদিকে খবর পেয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে ছবি তুলতে গেলে ওই এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যাক্তি নিউজ না করার জন্য অনুরোধ করে।

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :