জামালপুরে আ.লীগ-বিএনপির সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:০৩ AM, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫

 জামালপুর সংবাদদাতা : আরামনগর বাজার এলাকায় শনিবার রাত ৯ টায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াসহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। ওই সময় উপজেলা বিএনপির কার্যালয় ও ৫টি মোটর সাইকেলে অগ্নিসংযোগসহ শতাধিক দোকান, ১০টি মোটর সাইকেল ও ২টি প্রাইভেট কার ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অর্ধ শতাধিক কর্মী সমর্থক আহত হয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পাল্টাপাল্টি মিছিল বের করে। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে দোকানপাট ভাঙচুর ও লুটতরাজের প্রতিবাদে আরামনগর বাজারে বিএনপি সমর্থিত ব্যবসায়ীরা রোববার সারাদিন ধর্মঘট পালন করেন।এ ঘটনার জন্য জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে রবিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি পাল্টা পাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছে। দলীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সভাপতি ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীম অভিযোগ করেন, ‘আওয়ামী লীগ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রচারনা চালাচ্ছে। তারা নির্বাচনের আগে বিএনপির নেতাকর্মীদের এলাকা ছাড়তে হুমকি দি্েচ্ছ। তাই নির্বাচনের দিন কোন বাধা আসলে হয় মরবো, না হয় মারবো।’ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বিএনপি নেতারা সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবী জানান।

একইদিন সকালে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রোকনুজ্জামান জানান, ‘কোন কারন ছাড়াই বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহীন তালুকদারের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা হয়। বিএনপির সন্ত্রাসীরা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মিছিলে গুলিবর্ষন করলে আমার একটি কান স্তব্ধ হয়ে যায়। তারা বিশৃঙ্খলা করে আওয়ামী লীগের বিজয়কে নস্যাৎ করতে চেষ্টা করছে।’ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা বলেন, বিএনপি তাদের কার্যালয় নিজেরাই ভাঙচুর করে আওয়ামী লীগের কাঁধে দোষ চাপাতে চেষ্টা করছে। বিএনপি কর্মীরা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মোটর সাইকেল ছিনতাই, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে। বিএনপি নির্বাচনের দিন হত্যাকান্ডের মাধ্যমে বিজয়ের অপচেষ্টা করছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি বিল্লাল উদ্দিন বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সংঘর্ষের সময় কোন গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটেনি। তবে মিছিলে হামলা ও আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রোকুনজ্জামানকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে তার বড়ভাই সাইফুল ইসলাম টুকন বাদি হয়ে রোববার সকালে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :