ছাত্রীদের পর্ণছবি দেখানোর অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

সুনামগঞ্জঃ স্কুলছাত্রীদের ‘পর্নোগ্রাফি দেখিয়ে’ যৌন হয়রানির অভিযোগে এক প্রধান শিক্ষককে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মাইজবাড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের পর্ন ভিডিও দেখতে বাধ্য করার অভিযোগে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গিয়াস উদ্দিনকে পুলিশে দিয়েছেন অভিভাবক ও এলাকাবাসী। মঙ্গলবার বিকেলে ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা প্রথমে বিদ্যালয় ঘেরাও দিয়ে ওই শিক্ষককে মারধরের চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হোসেন বলেন, ‘আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসি। অভিযুক্ত শিক্ষককে থানা হেফাজতে দেয়া হয়েছে। ভুক্তভোগী ছাত্রীদের অভিভাবকরা বলেন, বেশ কিছু দিন ধরেই শিক্ষক গিয়াস উদ্দিন নানা অজুহাতে ছাত্রীদের ছাদে নিয়ে খারাপ ছবি দেখাত। তাদের হাত ধরে টানাটানি করত। ছবি না দেখলে নানাভাবে হয়রানি করত। মঙ্গলবার একই কাজ করলে এলাকাবাসী নিয়ে আমরা বিদ্যালয় ঘেরাও করি। আমরা এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দেব।’

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবারও চার ছাত্রীর মধ্যে দুই ছাত্রীকে ছাদে নিয়ে পর্নোগ্রাফি দেখানোর চেষ্টা করেন ওই শিক্ষক। তখন অন্য দুই ছাত্রী বিষয়টি তাদের অভিভাবকদের জানায়। এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে বিদ্যালয় ঘেরাও ওই শিক্ষককে মারধর করে স্থানীয় মানুষজন। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে উদ্ধার করে তাদের হেফাজতে নিয়ে আসে।

ঠাখ/আরএফ