গাঁজা খাওয়ার প্রতিবাদ করায় মার খেলেন যুবলীগ সভাপতি ও তাঁর পিতা

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:২৩ PM, ১৯ জুন ২০১৬

ঠাকুরগাঁওয়ের খবর : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রাজাগাঁ ইউনিয়নে একটি সংঘবদ্ধ গাঁজা সেবনকারী দলকে গাঁজা খাওয়া থেকে বিরত থাকতে বলায় মার খেলেন ঐ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হাজিরউদ্দিন ও তাঁর পিতা নিয়ামত আলী খাঁন।বর্তমানে তাঁরা গুরুতর আহত হয়ে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহতরা জানান, গতকাল রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টার দিকে হাজিরউদ্দিন তার বাসা থেকে বের হয়ে আবাদী জমি-জমা দেখতে পার্শ্ববর্তী দামুভিটা গ্রামের বিএমডি-১৮ ব্লকে যান।সেখানে গিয়ে দেখেন একটি বাইসাইকেল পড়ে রয়েছে অথচ আশে-পাশে কেউ নেই।এতে তিনি হাঁক-ডাক দেন।এসময় তার হাঁক-ডাকে একে একে হেলাল(২০), নাছিরুল(২৫), শরিফুল(২৫), সুজন(১৮), আরিফ(১৬), আবেদ আলী(৩০) ও তাদের লিডার বাবুল(ঢাকায় থাকে) অন্ধকার থেকে বেড়িয়ে আসে।অতপর হাজিরউদ্দিন তাদের জিজ্ঞাসা করেন এত রাতে তোমরা এখানে কি করছো? আমি জানি তোমরা সবাই এখানে ফাঁকা জায়গা পেয়ে গাঁজা সেবন করো। এরপর থেকে যদি তোমাদের এরকম কর্মকান্ড বন্ধ না করো তাহলে আমি বিষয়টি চেয়ারম্যানকে জানাবো।এতে তারা কোন প্রতিউত্তর না করে সেখান থেকে চলে আসে।
পরদিন রবিবার(১৯ জুন) সকাল সাড়ে ৯টায় পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নের এক যুবনেতা সহ মোটরসাইকেলযোগে ঠাকুরগাঁও আসার পথে রাজাগাঁ দামুভিটা থেকে ২০গজ উত্তরে আকস্মিক উল্লেখিত নামধারীরা সহ তাদের আত্মীয়-স্বজন আমাদের গতিরোধ করে এবং মোটরসাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকে এবং বলে ”বেটা আমাদের নামে চেয়ারম্যানের কাছে অভিযোগ দিছিস,চেয়ারম্যান আমাদের কিছুই করতে পারবে না”।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঐ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার অজিত চন্দ্র বলেন, এ গ্রুপটি এলাকার চিহ্নিত মাদক সেবী।এদের আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে রাজাগাঁ ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সা: সম্পাদকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

অপরাধ

আপনার মতামত লিখুন :