খানকাহ’র খিলাফাতী মসজিদে বৃহৎ ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উদযাপন

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:০৮ AM, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৫

সৈয়দ আবদুল করিম,(বিশেষ প্রতিনিধি) : বিশ্ব নবী হাজরাত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম উৎসব পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নাবী। সৃষ্টি কুলের শ্রেষ্ঠ ঈদ। বিশ্ব নবীর জন্ম ঈদ। ঈদ-ই-মিলাদুন্নাবী সাঃ-“ফাতেহা শরীফ”-ধন্য হোক। হাজরাত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম উৎসব ধন্য হোক। এই প্রতিপাদ্যকে ধারন করে অন্যান্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে ২৫ ডিসেম্বর, ১২ ই রবিউল আউয়াল শুক্রবার ঠাকুরগাঁওয়ের  খিলাফাতী মসজীদে মিলাদ ও দোয়ার মাধ্যমে পালিত হয ঈদ-ই-মীলাদুন্নাবী (সাঃ)। গত কয়েকদিন যাবৎ খিলাফাতী খানকাহ শরীফের সমগ্র এলাকা জুড়ে আলোক সজ্জায় সজ্জিত হয়ে সাজ সাজ রবে বিরাজ করছে  প্রতিটি ঘর। আনন্দে উদ্বেলিত ওই এলাকার প্রতিটি মানুষ। বেশ কয়েক দিন থেকে নেওয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। সুন্দর সাজে স্বজ্জিত একাধিক গেইট ও শোভনীয় আলোকসজ্জা সহজেই পথচারীদের আকৃষ্ট করে। এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বিশ্বনবী হাজরাত মুহাম্মদ সাঃ এর জন্ম উৎসব পালনের অসাধারন আয়োজন। ফাতেহা শরীফ ম্যানেজিং কমিটির সাথে কথা বলে জানা গেছে, এবার তারা ৪০ টি গরু ও ২ শতাধীক ছাগল কোরবানী দিয়েছে। বাদ জুম্মা পবিত্র মওলুদ শরীফ পাঠ এবং হযরত মুহাম্মদ সাঃ সৃষ্টি এবং মুহাম্মদ সাঃ প্রকৃত পরিচয় নিয়ে আলোচনা করেছেন বর্তমান গদ্দিনশীল পীর হাযরাত গোলাম নাক্শাবান্দ আলাব্বী আঃ। মওলুদ শরীফ শেষে অতিথিদের মাঝেও তোবারক দেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানান ১৯৫০ সাল থেকে খিলাফাতী মসজীদে এই উৎসব উদযাপন করে আসছেন। এরই ধারাবাহিকতাই আজকের এই ব্যপক ও বিস্তৃত পরিসরে আয়োজন ও ঠাকুরগাঁওয়ে খিলাফাতী মসজিদে বৃহৎ ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উদযাপন। এ সময় শত শত আশেকে রাসূল, ভক্ত, অনুসারী ও অনুরাগীদের উপস্থিতিতে এ এলাকা হয়ে  উঠেছিল ভালোবাসা, ভ্রাতৃতবোধ, সৌহার্দ প্রীতির তীর্থস্থান।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :