কালিহাতীতে ৬৫টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই; ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:২৬ AM, ২২ মার্চ ২০১৭

শুভ্র মজুমদার,কালিহাতী(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় ১৭২টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৬৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদ শুন্য এবং ১০টি স্কুলে ১জন বা দুইজন শিক্ষক দিয়ে বিদ্যালয়ে পাঠদান করা অসম্ভব হয়ে পড়ায় পরিচালনা পরিষদ ও অভিভাবকরা দিশেহারা।

গতকাল সোমবার দুপুরে প্রধান শিক্ষক পদ শুন্যের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার জাকিয়া পারভীন।

জানাযায়, কালিহাতী উপজেলায় ১৭২টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। তার মধ্যে ৬৫টি স্কুলের প্রধান শিক্ষক পদ শুন্য অবস্থায় থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাপক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এ দিকে কমিউনিটি স্কুলএমপিও ভুক্ত তালিকা থেকে ১০টি স্কুল সরকারী করন হয়েছে।

মাত্র ২জন শিক্ষক দিয়ে বিদ্যালয়ে পাঠদান করে আসছে। তাছাড়া নতুন মাত্রায় সরকারী করন প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোর মধ্যে সিংহটিয়া,গোপিনাথপুর,পালিমা গোলপাড়া,ঝগরমান,কুষ্টিয়া সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়ে ১জন শিক্ষক বা ২জন শিক্ষক দিয়ে গাছতলা বা বাড়ান্দায় পড়াশুনা করার অভিযোগ রয়েছে। অন্যান্য উপজেলার তুলনায় কালিহাতী উপজেলায় শিক্ষার মান কিছুটা মলিন হচ্ছে দিন দিন বলে মনে করছেন অনেকেই।

প্রধান শিক্ষক ছাড়াই চলছে এমন কয়েকটি স্কুলে যোগাযোগ করে জানা গেছে, সহকারী শিক্ষক দিয়ে যেভাবে হ-য-ব-র-ল অবস্থায় বিদ্যালয় পরিচালনা হচ্ছে তাতে নেই কোন নিয়ম কানুন এমনকি কেউ কাউকে মানছেন না। যার যার মতো চলছে শিক্ষকরা, এতে করে বিদ্যালয়ের কাঠামো ভেঙ্গে পড়ছে।

সিংহটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হরে রাম মদক জানান, শিক্ষক সংকটের কারনে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীর পড়াশুনা ঝিমিয়ে পড়ছে।আমাদের এখানে আরো কমপক্ষে ৪জন শিক্ষক দরকার। ৬টি ক্লাশে ২জন শিক্ষক দিয়ে মোটেই পাঠদান করা সম্ভব হচ্ছেনা।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার জাকিয়া পারভীন জানান, শিক্ষক সংকটের বিষয়টি আমি লিখিত এবং মৌখিক ভাবে বার বার জানানোর পরও তেমন কোন কাজে আসে নাই। তবে আশা করছি কিছু দিনের মধ্যে সমস্যা দুর হবে।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :