কান্তজিউ মন্দির পরিদর্শন করলেন র‌্যাব মহাপরিচালক

tkeditortkeditor
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৭ AM, ২২ ডিসেম্বর ২০১৫

কাহারোল (দিনাজপুর) থেকে সুমন : ঐতিহাসিক শ্রী শ্রী কান্তজিউ রাস মেলার যাত্রা প্যান্ডেলে গত ৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে ও ১০ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৭ টার দিকে কাহারোল উপজেলার ডাবর ইউপির ডহচি ইসকন মন্দিরে বোমা হামলা ও গুলি বর্ষনের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহম্মেদ কান্তজিউ মন্দির পরিদর্শনে এসে বলেছেন, বাংলাদেশ শান্তি ও সম্প্রীতির দেশ । এদেশের মানুষ অসম্ভবকে সম্ভব করতে পারে। এদেশে কোন জঙ্গী তৎপরতা থাকতে পারে না। আমরা সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জঙ্গী উৎপাটন করবো। যারা জঙ্গী ও মানুষ হত্যার সাথে জড়িত, সময় থাকতে আইনের কাছে আত্মসমর্পন করুন। না হলে এদেশের ১৬ কোটি মানুষ আপনাদের খড়ের পোয়াল হতে আলপিনের মতো খুঁজে বের করবে। জঙ্গীদের কোন ধর্ম নাই। তারা মনে করে মানুষ মেরে ধর্ম প্রতিষ্ঠা করা যায়। কিন্তু খুন হত্যা ও অশান্তি সৃষ্টি করে ধর্ম প্রতিষ্ঠা করা যায় না। ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই কথাটিকে মনে প্রানে ধারণ করে সকলকে ঐক্য বদ্ধ প্রচেষ্টায় এদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে হবে। সোমবার বেলা ১১ টার দিকে দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার ঐতিহাসিক কান্তজিউ মন্দির পরিদর্শন শেষে মন্দির প্রাঙ্গনে দিনাজপুর র‌্যাব-১৩ এর আয়োজনে অপরাধ প্রতিরোধ মুলক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ও প্রেসব্রিফিং-এ তিনি এসব কথাগুলো বলেন। দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলমের সভাপতিত্বে ও কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রবিউল ফয়সালের সঞ্চালোনায় এসময় বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, র‌্যাবের -১৩ এর উইং কমান্ডার ফরহাদ মাহমুদ (পিএসসি) ও দিনাজপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রুহুল আমীন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজ দেবেত্তর এ্যাস্টেটের এজেন্ট অমলেন্দু ভৌমিক, কাহারোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মামনুর রশিদ চৌধূরী, উপজেলা পুজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায়,  দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্তঘোষ প্রমূখ।

জেলার খবর

আপনার মতামত লিখুন :